মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

মনোহরদী থানার ইতিহাস ও ঐতিহ্য/ পটভূমি

উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

 

মনোহরদী থানা প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯০৪ ইং সালে ১৯০৪সালে মনোহরদীতে পুলিশী থানা প্রতিষ্টিত হওয়ার পূর্বে এ জনপদটি ছিল রায়পুরা থানার অন্তগর্ত রায়পুরা থানার উত্তর পশ্চিম সীমান্তে ব্রাহ্মপুত্র ও আড়িয়ালখাঁ নদী ও এদের শাখা প্রশাখা বেষ্টিত দ্বীপ সাদৃশ্য যোগাযোগ বিছিন্ন একটি প্রত্যন্ত অঞ্চল ভৌগলিক অবস্থান গত দিক এবং এ জনপদের বিভিন্ন স্থানের নাম করনের অজানা তথ্য বিচার বিশ্লেষন করলে এ জনপদটির সামগ্রিক ভৌগলিক অবস্থানকে দ্বীপাঞ্চল বা দ্বীপাবলির সমাহার বলে গ্রহণ করতে কোন দ্বিপা থাকে না। কারণ ভারত বর্ষের জনবসতির প্রারম্বিক ইতিহাস ও প্রাক ঐতিহাসিক কালের বিলুপ্তির শেষপ্রান্তের ইতিহাস আলোচনা করলে দেখা যায় যে, যাযাবর অযার্য্য ও দ্রাবিরগন আর্যাগণ কর্তৃক বিস্তারিত হয়ে দাক্ষিনাত্য ও সমতটঙ্গড প্রদেশের নদীর তীরে বা চরাঞ্চলে বসতি যাপন করেছিল, যেহেতু অযার্য্যগণ যাযাবরের মত জীবন যাপনে অভ্যস্ত ছিল এবং যেহেতু পলিমাটি দ্বারা গঠিত নদী তট বা দ্বীপ ছিল তাদের বসত যাপনের লক্ষ্যস্থল । এতদ প্রেক্ষিতে মনোহরদী থানার ভৌগলিক অবস্থান দ্বীপ সাদৃশ্য থাকায় সম্ববতঃ যাযাবর গণ এখানে বসত বাড়ী গড়ে তুলেছিল। মনোহরদী থানার পূর্বাঞ্চলের মাঝ দিয়ে দক্ষিন দিক প্রবাহমান রয়েছে। আড়িয়াল খাঁ নদী পূর্ব প্রান্তে উত্তর প্রান্ত দিয়ে হয়ে চলেছে। ব্রাহ্মপুত্র পশ্চিম প্রান্ত দিয়ে বয়ে চলেছে একটি শাখা নদী, মাঝ মধ্য দিয়ে বয়ে চলেছে উল্লেখিত অনেকগুলো শাখা প্রশাখা , খাল ,বিল উল্লেখিত নদী গুলো তীর ধরে উত্তর পূর্ব পাশ দিয়ে ঘুরে পশ্চিম সীমান্ত দিয়ে দক্ষিন দিকে অগ্রসর হয়ে ব্রাহ্মনপুত্রের শাখা ও শীতলক্ষ্যার সংগমস্থল লাখপুর পর্যন্ত সন্নি নিকটবর্তী গ্রাম বা জনপদ গুলো নাম লক্ষনীয় ভাবে মনোহরদী থানার ভৌগলিক অবস্থানের সাক্ষ্য বহন করে চলেছ। মনোহরদী থানার অধিক সংখ্যক গ্রাম বা জনপদের নাম পুর বা দ্বীপ বা চর নামে খ্যাত। পুর হচ্ছে পুরীর কথা রূপ আর দ্বীপ দিয়ে , দ্বীপের আভ্রাংশ বা কথা রূপ উদারহরণ সরূপ উত্তর পূর্ব কোন থেকে উল্লেখ করছে- কৃষ্ণপুর গোলায়বাড়ীয়ারচর খিদিরপুর আহাম্মদ পুর , রামপুর ,নরেন্দ্র পুর শরীফপুর ,সাগরদী , নয়াকান্দী , তারাকান্দী , অর্জুনচর , আসাদনগর , মনোহরদী, দাইরাদী , রোদ্রধী , চন্দনদিয়া , চন্দনবাড়ী , হাররদিয়া , নারান্দী , শুকুন্দী , দীঘাকান্দী , হাতিরদিয়া , বিলাদ্বী (বিলাগা ) , কুচেরচর , দৌলতপুর , কৃর্ত্তিবাসদী , হরিনারায়নপুর ইত্যাদি। মধ্য ভাগ জুরে নামে বিভিন্নতা ও বিক্ষিপ্ততা নমনীয় এখানে গাও বা কামদার বা দ্বীপের সমাহার ঘটেছে। যেমন তারাকান্দী মাজদী (মাজদীয়া ) বড়চাপা, মির্জাপুর , কাহেতেরগাও, বারুদ্দী (বারুদ্দীয়া) মাধুপুর , সাভারদিয়া , বগাধি , পাচঁকান্দী , পূর্বাঞ্চল , জুড়ে জামালপুর , পোড়াদিয়া , ইত্যাদি। মোট কথা মনোহরদী থানার জনপদটি দ্বীপাঞ্চলে বা চরাঞ্চলে কখন থেকে জনবসতি শুরু হয়েছিল তার কোন ঐতিহাসিক বা ভৌগলিক তথ্য কোথাও খোঁজে পাওয়া যায়নি।

এ উপজেলার উত্তরে কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া ও কটিয়াদী উপজেলা, দক্ষিণাংশে নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলা, পশ্চিমে গাজীপুর জেলার কাপাশিয়া উপজেলা, পূর্বে নরসিংদী জেলার বেলাব উপজেলা।

উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

ছবি


সংযুক্তি